ঢাকারবিবার, ১৪ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, সন্ধ্যা ৬:৩৯

সড়ক দখল করে হাটবাজার, ভোগান্তিতে জনসাধারণ

কাজী রাকিব
এপ্রিল ২৭, ২০২২ ৪:৩২ পূর্বাহ্ণ
পঠিত: 168 বার
Link Copied!

বরগুনার পাথরঘাটায় জমজমাট হতে শুরু করেছে ঈদের হাটবাজার। তবে পাথরঘাটা বাজারে কিনতে এসে ভোগান্তিতে পড়েছে জনসাধারণ। ভোগান্তির একমাত্র কারণ হিসেবে তারা দায়ী করছেন সড়কের দখল করে যত্রতত্র দাঁড়িয়ে থাকা আনারস, শসা, তরমুজ, ফুট, পেয়ারা, বাদাম, সবজিসহ প্রায় অর্ধশত ভ্রাম্যমান ব্যবসায়ীকে।

পাথরঘাটা বাজারে প্রবেশের প্রধান দুটি সড়ককে কেন্দ্র করে দু’ধারে ভ্যান গাড়িতে রসদ গুছিয়ে দাঁড়িয়ে থাকে এ সকল ভ্রাম্যমান ব্যবসায়ীরা। এদের কারণে বাজারে প্রবেশ করতে নানা ধরনের ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে ক্রেতাদের। এতে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন কয়েক শতাধিক মানুষ। তাদের অভিযোগ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ বিষয়টি যেন দেখেও না দেখার ভান করে চলে যাচ্ছে।

পাথরঘাটা বাজারের সন্তানদের জন্য ঈদের কেনাকাটা করতে আসা কালমেঘা ইউনিয়নের বাসিন্দা নাজমুল হাসান জানান, এমনিতেই শহরে প্রবেশের রাস্তা সরু। এর মধ্যে দশ গজের ব্যবধানে রাস্তার দু’ধারে ভ্যানগাড়িতে করে মালামাল নিয়ে দাঁড়িয়ে থাকে কিছু অসাধু ব্যবসায়ীরা। এতে করে পায়ে হেঁটে যেতে যেমন ভোগান্তি পোহাতে হয় তেমনি গাড়িতে চলে গেলে দীর্ঘক্ষন যানজটে দাঁড়িয়ে থাকতে হয়। পাথরঘাটা সদর ইউনিয়নের রহিমা বেগম জানান, রাস্তার উপর দাঁড়িয়ে থাকা এসব দোকানের কারণে হাঁটা তো দূরের কথা কোনো দোকানে ঢুকে কিছু কেনাও যায়না। এতো ছোট জায়গায় এতো গুলো ভ্যানে করে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নাকের ডগায় একই আইটেম বিক্রি করছে যা তারা দেখেও দেখছে না।

সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, পাথরঘাটার জিরো পয়েন্ট শেখ রাসেল স্কয়ারে থেকে শুরু করে শহরের উত্তর গলি দিয়ে প্রবেশ মাওলানা আব্দুস সোবাহানের ইসলামী ফার্মেসীর সামনে এবং এর থেকে পাচগজ দুরে দুটি ভ্যানে পেয়ারা বিক্রি হচ্ছে। তার থেকে বিশ গজ দূরে নুরীয়া লাইব্রেরীর সামনে একই অবস্থা। উত্তর গলি থেকে দক্ষিণ গলি দিয়ে বের হতে আধা কিলোমিটার সড়কের এরকম প্রায় ৪২টি ভ্যান চোখে পড়ে। অপরদিকে শেখ রাসেল স্কয়ারে থেকে কলেজ রোড, থানা রোডের ও একই অবস্থা। অপরদিকে বিভিন্ন দোকানের সামনে সাজিতে করে পান সুপারি ও চট পেতে বিভিন্ন আইটেমের দোকান বসেছে। ভ্যানে পণ্য বিক্রি করা সংশ্লিষ্টদের কাছে রাস্তার যেখানে সেখানে দাঁড়িয়ে কেন এভাবে পন্য বিক্রি করছেন কেন জানতে চাইলে কেউ মুখ খুলতে চাননি। বরং তারা জানান বিষয়টি কর্তৃপক্ষ অবগত আছেন। আমরা সবাই এর জন্য পৌরসভার টাকা পরিশোধ করছি।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, পাথরঘাটা পৌরসভা থেকে বাজারের প্রতিটি মহল ভিন্ন ভিন্ন করে স্থান নির্ধারণ করে দেয়া হলেও এ আইন কেউ মানছে না। তারা যত্রতত্র গাড়ি পার্কিং করে তাদের সুবিধে মতো করে ভ্যানে মালামাল সাজিয়ে বসেছে। আর এতে করে ভোগান্তিতে পড়েছে ঈদের বাজারে আসা ক্রেতারা।

এবিষয়ে পাথরঘাটা পৌর মেয়র আনোয়ার হোসেন আকন বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান এসকল ভ্যান গুলো পৌর পরিষদের ইজারার আওতায় রয়েছে। এদের কারনে শহরে জানজট হচ্ছে এর কোন প্রতিকার আছে কিনা জানতে চাইলে তিনি কোন উত্তর না দিয়ে অন্যত্র চলে যান।

এ বিষয়ে পাথরঘাটার ট্রাফিক বিভাগের উপ-পরিদর্শক শাহ্ আলম জানান, জনবল সংকটের কারনে কিছুটা সমস্যা হচ্ছে। তবে আমরা সর্বোচ্চ চেষ্টা করছি সড়কের যানযট নিয়ন্ত্রণ করতে।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।