ঢাকাশনিবার, ৩রা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, সন্ধ্যা ৭:১২

বেতাগীতে বিএনপি’র কমিটি বাতিলের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল

বেতাগী প্রতিনিধি
আগস্ট ১৮, ২০২২ ৫:৪৭ অপরাহ্ণ
পঠিত: 152 বার
Link Copied!

বরগুনার বেতাগীতে বিএনপি’র উপজেলা ও পৌরসভা কমিটি গঠনে ঘুষ নেয়ার অভিযোগে বিক্ষোভ ও কেন্দ্রীয় নেতার ছবিতে জুতা ও ঝাড়ু পেটা করেছেন বিএনপির পদ বঞ্ছিত নেতা
কর্মীরা।

বৃহস্পতিবার (১৮ আগস্ট) সকাল ১১ টায় উপজেলার খাস কাঁচারি মাঠে এ বিক্ষোভ মিছিল করা হয়। এ সময় বিএনপি’র কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সহ শ্রম বিষয়ক সম্পাদক ও বরগুনা জেলা বিএনপি’র আহবায়ক কমিটির জ্যেষ্ঠ সদস্য ফিরোজ-উজ্জামান মামুন মোল্লার ছবিতে জুতা ও ঝাড়ু পেটা করে বিক্ষোভ প্রতিবাদ করে বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা।

বিক্ষোভকারীরা জানান, গত ২ আগস্ট বেতাগী উপজেলা বিএনপি ও পৌরসভা বিএনপির আহবায়ক কমিটি দেয়া হয়। এতে ১১ সদস্য বিশিষ্ট উপজেলা আহবায়ক কমিটি ও ১৪ সদস্য বিশিষ্ট পৌর আহবায়ক কমিটি অনুমোদন দেয় বরগুনা জেলা বিএনপি’র আহ্ধসঢ়;বায়ক কমিটি। তাঁদের অভিযোগ ওই কমিটিতে ত্যাগী ও জ্যেষ্ঠ নেতাকর্মীদের পদ পদবী না দিয়ে টাকার বিনিময় পকেট কমিটি দেয়া হয়েছে। বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন

বেতাগী উপজেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি ও সাবেক উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এবং পৌরসভার মেয়র মো. শাহজাহান কবির। তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেন, কেন্দ্রীয় নেতা মামুন মোল্লা একসময় ছাত্রলীগ করতেন।

বরগুনা জেলা বিএনপি’র আহবায়ক মাহবুবুল আলম ফারুক মোল্লা জাতীয় পার্টি থেকে এসে বিএনপিতে যোগদান করেছেন। তারা ত্যাগী নেতাকর্মীদের মূল্যায়ন করতে জানে না। তাঁরা মোটা অংকের টাকা ঘুষ নিয়ে বেতাগী উপজেলা ও পৌর বিএনপি’র কমিটি দিয়েছেন। ১১ সদস্যবিশিষ্ট উপজেলা আহব্বায়ক কমিটির সদস্য সচিবসহ ৫ জনই বিতর্কিত আওয়ামী পন্থী। আমরা এই কমিটি বাতিল চাই।

এ বিষয়ে বিএনপি’র কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সহ শ্রম বিষয়ক সম্পাদক ফিরোজ-উজ্জামান মামুন মোল্লার বলেন, আমাকে নিয়ে বিভ্রান্তমূলক, মিথ্যা ও ভিত্তিহীন কথা বলা হচ্ছে। কমিটি অনুমদন দিয়েছে বরগুনা জেলা বিএনপি। শাহজাহান ভাইয়ের যদি কোন অভিযোগ থাকতো তাহলে তা দলীয় ফোরামে জানাতে পারত। রাস্তায় মানুষের ছবি নিয়ে বিক্ষোভ করে তিনি কান্ডজ্ঞানহীন নেতার পরিচয় দিয়েছে। বড় দলে কমিটি হলে এক গ্রুপ লাফালাফি করেই। এরা আবার থেমে যায়।

বরগুনা জেলা বিএনপি’র আহবায়ক মাহবুবুল আলম ফারুক মোল্লা বলেন, যারা রাস্তায় বিক্ষোভ করেছে তাঁরা অসাংগঠনিক লোক। টাকার বিনিময়ে কমিটি দিয়েছি এমন অভিযোগ মিথ্যা। শাহজাহান কবির দুইবার বহিষ্কৃত ছিল। তাঁকে উপজেলা কমিটিতে আহবায়ক না করায় তিনি এসব করছেন। আমরা তাঁকে শোকজ করবো।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।