ঢাকাশনিবার, ৩রা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, সন্ধ্যা ৭:২১

সেই পুলিশ কর্মকর্তার স্থায়ী বরখাস্তের দাবিতে বিক্ষোভ

নিজস্ব প্রতিবেদক
আগস্ট ১৭, ২০২২ ৩:২৯ অপরাহ্ণ
পঠিত: 55 বার
Link Copied!

‘বিএনপি, জামায়াত শিবির ও স্বাধীনতা বিরোধী লালন ও বাস্তবায়নকারী পুলিশদের অন্য নয়, স্থায়ীভাবে চাকরি থেকে বরখাস্ত করতে হবে। শুধু বদলী করলেই চলবেনা।’

ছাত্রলীগ কর্মীদের উপর হামলা ও সংসদ সদস্যের সাথে ঐদ্ধত্যপূর্ণ আচরণের প্রতিবাদে জেলা আওয়ামী লীগের বিক্ষোভ ও জনসমাবেশে বক্তব্যে বরগুনা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভু একথা বলেন।

মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) সন্ধ্যা সাড়ে ৮টায় বরগুনা প্রেসক্লাব চত্বরে অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এমপি শম্ভু আরও বলেন, ‘বরগুনার ছাত্রলীগের উপর কতিপয় বিএনপি, জামায়াত শিবির ও স্বাধীনতা বিরোধী লালন ও বাস্তবায়নকারী দায়িত্বহীন পুলিশ যে অমানবিক নির্যাতন চালিয়েছে তা সারা পৃথিবীতে বিরল। এরকম দায়িত্বহীন পুলিশ কর্মকর্তাদের অন্যত্র বদলি নয়, এদেরকে স্থায়ীভাবে চাকরি থেকে বরখাস্ত করতে হবে। পুলিশ প্রশাসনে জামাত-শিবির স্বাধীনতা বিরোধীচক্রের একটা অংশ ঘাপটি মেরে বসে আছে, এদেরকে চিহ্নিত করে চাকরি থেকে অচিরেই বরখাস্ত করা না হলে মুক্তিযুদ্ধের লালিত স্বপ্ন বাস্তবায়ন অসম্ভব হয়ে দাঁড়াবে। ছাত্রলীগের উপর নির্মম হামলাকারীদের অতি দ্রুত সনাক্ত করে আইনের আওতায় দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি সাংসদ শম্ভুর।

ছাত্রলীগের কমিটি প্রসঙ্গে এমপি শম্ভু বলেন, কাউন্সিল বিহীন ঘোষিত বরগুনা জেলা ছাত্রলীগের কমিটির মত এত নোংরা, একটা উৎশৃংখল, এত বাজে কমিটি স্বাধীনতার পর থেকে আর কোনদিন এরকম কোন কমিটি হয়নি। এই কমিটির মাধ্যমে বরগুনায় যত অঘটনের সৃষ্টি হচ্ছে। আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ করব, তিনি নিজের হাত দিয়ে সাইন করে এই কমিটি বাতিল করে কাউন্সিলের মধ্য দিয়ে নতুন করে কমিটি গঠন করতে। এই কমিটি জেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগসহ কোনো অঙ্গসংগঠনই মেনে নেয়নি এবং নিতেও পারবেনা।

তিনি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বলেন, এপি মহরমকে প্রত্যাহার করে নেয়ার পাশাপাশি অন্যান্য আরো পাঁচজনকে চাকরি থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

এএসপি মহরম সম্পর্কে বলেন, তিনি জামাত শিবির রাজাকার পরিবার থেকে চাকরিতে নিযুক্ত হয়েছেন। তিনি যে বিশ্ববিদ্যালয়েঢ লেখাপড়া করেছেন সেখানে সরাসরি জামাত শিবির রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত ছিলেন। এএসপি মহরমের পিতা সরাসরি বিএনপি রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত ছিলেন। মহরমকে স্থায়ীভাবে চাকরিচ্যুত করা না হলে বরগুনার গণ আন্দোলন অব্যাহত থাকবে।

সমাবেশ শেষে উপস্থিত নেতৃবৃন্দের উপস্থিতিতে এএসপি মহরমের কুশপুত্তলিকা পোড়নো হয়। বিক্ষোভ মিছিল ও গণ সমাবেশে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, কৃষক লীগ, শ্রমিকলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, ছাত্রলীগের একাংশসহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতাকর্মী অংশগ্রহণ করেন।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।