ঢাকাশনিবার, ৩রা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, সন্ধ্যা ৬:০৩

‘ক্ষমতা হারানোর ভয়ে নৈরাজ্য করছে আওয়ামী লীগ’

নিজস্ব প্রতিবেদক
সেপ্টেম্বর ৫, ২০২২ ৩:৪৮ অপরাহ্ণ
পঠিত: 122 বার
Link Copied!

বরগুনার পাথরঘাটায় বিএনপি নেতা ও বরগুনা-২ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য নুরুল ইসলাম মনিকে প্রবেশে বাধা ও মারধরের ঘোষণা একদিন আগেই দিয়েছিল উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। এমনটাই দাবি করেছেন বরগুনা জেলা বিএনপি।

রবিবার (৪ সেপ্টেম্বর) রাত ১০ টায় বরগুনা জেলা বিএনপির দলীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে জেলা বিএনপির সভাপতি মো. মাহবুবুল আলম ফারুখ মোল্লা এ দাবি করেন।

তিনি বলেন, কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে বরগুনা-২ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য নুরুল ইসলাম মনি নিজ এলাকা পাথরঘাটায় যাওয়ার খবরে পাথরঘাটাবাসী ও স্থানীয় নেতাকর্মীরা উৎসাহিত হয়। কিন্তু জনসমর্থন দেখে উপজেলা আওয়ামী লীগ মনির কর্মসূচিতে না যাওয়ার জন্য সবাইকে আগেই সবধান করে এবং ঘোষণা দেয় পাথরঘাটা ঢুকতে চাইলে মনি ও তার সমর্থকদের পেটানো হবে।

তিনি আরো বলেন, ঘোষণা অনুযায়ী সাবেক সংসদ সদস্য নুরুল ইসলাম মনি পাথরঘাটায় যাওয়ার পথে তার গাড়ি ঘরে হামলা করে স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। হামলায় সাবেক সংসদ সদস্য নুরুল ইসলাম মনি, উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক চৌধুরী মোহাম্মাদ ফারুখ, সদস্যসচিব এম কামরুল ইসলাম সহ ৫০ জন নেতাকর্মী গুরুতর আহত হয়। এ সময় শতাধিক মোটরসাইকেল ভাঙচুর করে পুড়িয়ে দেয় ছাত্রলীগ-যুবলীগ।

সংবাদ সম্মেলনে জেলা বিএনপির সভাপতি মো. মাহবুবুল আলম ফারুখ মোল্লা আরও বলেন, নুরুল ইসলাম মনিকে তার মা-বাবার কবর জিয়ারত পর্যন্ত করতে দেওয়া হলো না। কারণ বরগুনা-২ আসনের সাবেক তিনবার জনপ্রিয় এমপি ছিলেন তিনি। সুষ্ঠু নির্বাচন হলে পুনরায় তিনি সাংসদ নির্বাচিত হবেন। এভাবেই ক্ষমতা হারানোর ভয়ে নৈরাজ্য করছে আওয়ামী লীগ।

উল্লেখ্য, তেল-গ্যাস ও অন্যান্য দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে সোমবার (৫ সেপ্টেম্বর) উপজেলা বিএনপি ঘোষিত বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশে অংশ নিতে রবিবার ঢাকা থেকে পাথরঘাটায় আসেন বিএনপি নেতা ও বরগুনা-২ আসনের সাবেক এমপি নুরুল ইসলাম মনি। দীর্ঘ ১৬ বছর পর নিজ গ্রামে এসে আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগ সহ অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীদের হামলার শিকার হন তিনি।

বিকেল ৫ টায় ঢাকা থেকে পাথরঘাটায় আসার পর সিএমবি এলাকায় প্রবেশ করা মাত্রই মনির গাড়ি বহরে হামলা হয়। এসময় শতাধিক মোটরসাইকেল ভাঙচুর ও আগুন দেয়া হয়। এছাড়াও ধাওয়া ও পাল্টা ধাওয়ায় আওয়ামী লীগ ও বিএনপি উভয় গ্রুপের শতাধিক আহত হন। এঘটনায় এখন পর্যন্ত পাঁচজনকে আটক করেছে পুলিশ। তবে হামলার বিষয় অস্বীকার করেছে স্থানীয় আওয়ামী লীগ।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।