ঢাকাশনিবার, ৩রা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, সন্ধ্যা ৭:৩৯

সবজির আড়ৎদাররা ফিরে পেলেন তাদের ঠিকানা

নিজস্ব প্রতিবেদক
আগস্ট ২৯, ২০২২ ৯:০৭ অপরাহ্ণ
পঠিত: 116 বার
Link Copied!

বরগুনা পৌরসভা কর্তৃক সবজি পাইকারী ব্যাবসায়ীদের কেনা-বেচার জন্য ২০১৩ সালে নির্মিত পাকা টলঘর দীর্ঘ দিন যাবৎ অবৈধ দখলদারদের দখল থেকে উদ্বার করেছে জেলা প্রশাসন।

গত রবিবার জেলা প্রশাসনের নির্বাহী মেজিস্টেট মিলটন চাকমার নেতৃত্বে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালিত হয়। বেলা ১২ টা থেকে দেড়টা পর্যন্ত অভিযানে টলঘরের মধ্যে অবৈধ হোটেল, কবুতর বাজার, পানের দোকান সহ নির্মিত খুপড়ী ঘর উচ্ছেদ করা হয়।

কয়েকজন অবৈধ দখলদাররা নোটিশ পেয়ে সরে গেলেও কয়েকজন অবস্হান করায় তাদেরকে উচ্ছেদ করা হয়। এসময় পৌরসভার সচিব আবুল কালাম আজাদ, ওয়ার্ড কাউন্সিলর টিটু ও পৌরসভার কর্মচারীরা উপস্হিত ছিলেন।

অবৈধ উচ্ছেদ প্রসংঙ্গে পৌর মেয়র আ্যাড়ঃ কামরুল আহসান মহারাজ বলেন, গ্রাম অঞ্চল সহ দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে কাঁচা পণ্যর পাইকার ব্যাবসায়ীদের বেচা-কেনার জন্য টলঘরটি অবৈধ ভাবে দখলে নেয়া হয়। নোটিশ সহ আমরা মাইকিং করে দখলদারদের টলঘর ছেড়ে দেবার জন্য বলেছি।আজ জেলা প্রশাসনের সহযোগীতায় নির্বাহী মেজিস্টেটের নেতৃত্বে অবৈধ দখলদারদের সরিয়ে কাঁচা সবজি পাইকারী ব্যাবসায়ীদের বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে। শহরের অবৈধ দখল উচ্ছেদ অব্যাহত থাকবে বলেও মেয়র বলেন।

কাঁচা বাজার পাইকারী সমিতির সাধারন সম্পাদক আঃ জব্বার বলেন, ২০১৩ সালে তৎকালীন জেলা প্রশাসকের সহযোগিতায় ১ নং খাস খতিয়ানের জমিতে পৌরসভা কাঁচামাল পাইকারী ব্যাবসায়ীদের জন্য এই টলঘরটি নির্মান করে। ২০১৪ সালে তৎকালীন মেয়রের ইন্ধনে ছোট ছোট ব্যাবসা এবং ঝুপড়ি ঘরও উঠে টলের ভিতরে। আমরা বাধ্যহয়ে রাস্তায় বেচা-কেনা করি। জেলা প্রশাসন, পৌর মেয়র এবং সাংবাদিক ভাইদের তাদের কারনে আমরা আমাদের জায়গা ফিরে পেয়েছি।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।