ঢাকাশনিবার, ৩রা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, বিকাল ৫:৪৩

পুকুরে ভাসছিল মা, ছেলের দাবি হত্যা

আমতলী প্রতিনিধি
জুলাই ২৭, ২০২২ ২:০৭ পূর্বাহ্ণ
পঠিত: 147 বার
Link Copied!

বরগুনায় কাতার প্রবাসী মেয়ের বাড়ির পুকুর থেকে মায়ের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তাকে হত্যা করে পুকুরে ফেলে রাখার অভিযোগ ছেলের।

মঙ্গলবার (২৬ জুলাই) দুপুরের আমতলী উপজেলার হলদিয়া ইউনিয়নের দক্ষিণ টেপুরা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত শাবানুর বেগম (৭০) একই গ্রামের মৃত জব্বার হাওলাদারের স্ত্রী।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, শাবানুরের মেয়ে শাহিনুর কাতারে থাকায় তিনি মেয়ে নাতি অন্তরকে (১১) নিয়ে মেয়ের বাড়িতে বসবাস করতেন। সোমবার রাতে নাতি অন্তরকে নিয়ে ঘুমিয়ে ছিল সে। সকালে অন্তর ঘুম থেকে জেগে দেখেন তার নানি বিছানায় নেই। খুঁজতে গিয়ে দেখেন ঘরের দরজা খোলা। এক পর্যায়ে বাহিরে খুঁজতে গিয়ে দেখেন ঘরের সামনে পুকুরে তার নানী শাবানুরের মরদেহ ভাসছে।

এসময় তার ডাকচিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে আসেন এবং পুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে দুপুরে আমতলী থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন।

শাবানুর বেগমের নাতি অন্তর জানান, নানি শাবানুরকে নিয়ে রাতে একবিছানায় ঘুমিয়ে ছিলাম। সকালে তাকে বিছানায় না পেয়ে উঠে দেখি ঘরের দরজা খোলা এবং নানির মরদেহ পুকুরে ভাসছে।

নিহত শাবানুর বেগমের ছেলে শহীদুল ইসলাম জানান, আমার মাকে হত্যা করে পুকুরে ফেলা হয়েছে। আমি এঘটনার সঠিক তদন্ত ও বিচার চাই।

আমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) একেএম মিজানুর রহমান জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে। ময়নাতদন্তের জন্য বিকেলে মরদেহ বরগুনার মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্ত শেষে বিস্তারিত বলা যাবে।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।