ঢাকাশনিবার, ২২শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, বিকাল ৪:২১
আজকের সর্বশেষ সবখবর

৬ দিন পর মিললো বায়েজিদের লাশ, এখনো নিখোঁজ আরেক ভাই

দৈনিক সৈকত সংবাদ
জানুয়ারি ১০, ২০২৩ ৭:৫৩ অপরাহ্ণ
পঠিত: 73 বার
Link Copied!

বলেশ্বর নদে নৌকা ডুবে নিখোঁজের ৬ দিন পর পাথরঘাটা থেকে ৩০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে সুন্দরবন সংলগ্ন পক্ষিদিয়া এলাকা থেকে ভাসমান অবস্থায় বায়েজিদ বেপারী (১৭) নামে এক ভাইয়ের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। তবে এখনো সন্ধান মেলেনি আরেক ভাই ইউসুফ বেপারীর।

মঙ্গলবার (১০ জানুয়ারি) বিকেল ৫টার দিকে ভাসমান অবস্থায় বায়েজিদ বেপারীর মরদেহ উদ্ধার করেন স্বজনরা।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তার ফুফাতো ভাই মো. বেল­াল মাঝি। ইতোমধ্যেই তারা মরদেহ নিয়ে বাড়ির পথে রওয়ানা হয়েছেন বলে বাংলানিউজকে মোবাইল ফোনে জানান তিনি।

বেল­াল মাঝি বলেন, নিখোঁজের দিন থেকেই প্রতিদিন সকাল থেকে রাত পর্যন্ত নদীতে অনুসন্ধান করেছি। আজ দুপুরের দিকে নদী থেকে ফিরে আসা জেলেদের কাছ থেকে জানতে পারি সুন্দরবন সংলগ্ন পক্ষিদিয়া এলাকায় মানুষের মতো কিছু ভাসছে। এ খবর বাড়ি থেকে আমাদের ফোনে জানালে আমরা ওই এলাকায় যাই। সেখানে ভাসমান অবস্থায় বায়েজিদের মরদেহ পাওয়া যায়। তার পরনে প্যান্ট ও শার্ট ছিল, শরীর কিছুটা পচন ধরেছে।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, গত মঙ্গলবার (৩ জানুয়ারি) রাতের খাবার খেয়ে চারদিনের বাজার সদাই নিয়ে ইউসুফ ও বায়েজিদ সুন্দরবন সংলগ্ন বলেশ্বর নদে মাছ ধরার জন্য ছোট একটি নৌকা নিয়ে বাড়ি থেকে রওনা দেয়। পরদিন বুধবার (৪ জানুয়ারি) রাত দেড়টার দিকে বায়েজিদ মায়ের কাছে ফোন দিয়ে জানায় তাদের নৌকা ডুবে গেছে। তারা দুই জন একটি ককশিটের উপর ভেসে আছে। তাদের তাড়াতাড়ি উদ্ধারের জন্য সাহায্য চায়। এরপর থেকে তাদের ব্যবহৃত মোবাইল বন্ধ পাওয়া যায়। সেই থেকেই প্রতিদিন পরিবারের পক্ষ থেকে নদীতে অনুসন্ধান করা হয়। পরিবারের ধারণা বায়েজিদের মরদেহ পাওয়া গেছে, হয়তো ইউসুফের মরদেহ কাছাকাছি থাকতে পারে।

পাথরঘাটা সদর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান আলমগীর হোসেন বলেন, বায়েজিদের মরদেহ পাওয়া গেছে এমন খবর শুনেছি।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।