ঢাকাবৃহস্পতিবার, ১১ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, সকাল ৭:৫২

মুরগী খেতে এসে ধরা, যুবকদের প্রচেষ্টায় অবমুক্ত

আমতলী প্রতিনিধি
ফেব্রুয়ারি ৫, ২০২২ ৭:৪৩ অপরাহ্ণ
পঠিত: 69 বার
Link Copied!

আমতলীতে একদল যুবকের মমতা আর ভালোবাসায় প্রাণে বেঁচে গেলো বিরল প্রজাতির এক গুইসাপ। পৌর শহরের সবুজবাগ এলাকায় ওয়াহিদের মুরগীর খোয়ারে জালের ফাঁদে শুক্রবার (৫ জানুয়ারি) সকালে এটি ধরা পরে।

গুইসাপটি প্রায় ১০ কেজি ওজনের ৭ ফুট লম্বায়। সেটিকে উদ্ধার করে অবমুক্ত করা হয়েছে।

জানা গেছে, সবুজ বাগের ওয়াহিদের মুরগীর খোয়ার থেকে প্রতিদিন ছোট ছোট মুরগীর বাচ্চা নিখোঁজ হওয়ায় ওয়াহিদ উদ্বিগ্ন হয়ে পরে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ওয়াহিদ খোয়ারে চারদিকে জালপেতে ফাঁদ তৈরী করেন। শুক্রবার সকালে মুরগির খেয়ারে কাছে গিয়ে দেখেন জালের ফাঁদে একটি বিশাল আকৃতির গুইসাপ আটকে রয়েছে।

গুই সাপটি দেখতে তামাটে লালচে বর্নের। এই ধরনের গুই সাপ সচরাচর এই এলাকায় এখন আর দেখা যায় না। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে এলাকার জিহাদ নামের এক যুবকের নেতৃত্বে এলাকার যুবকরা ছুটে আসেন এবং তারা এই গুইসাপটি না মেরে বনে ছেড়ে দেওয়ার জন্য উদ্যোগ নেন। পরে এটি বাক্সে বন্ধী করে বাসুগী গ্রামের পাতা বনে অবমুক্ত করা হয়।

স্থানীয় ষাটোর্ধ আম্বিয়া বেগম বলেন, আমরা ছোট বেলায় এরকম অনেক গুইসাপ দেখতাম। বাড়ীর বাগানে ঘোরাঘুরি করত। এখন বিশ বছরের মধ্যেও এরকম বড় আকারের গুঁই সাপ আর দেখি নাই।

স্কুল ছাত্র রাসেল ও আব্বাস আলী বলেন, এটা কি ধরনের প্রাণী তাই আমরা চিনি না। এর আগে এ ধরনের প্রানী আমরা আর কখনো দেখি নাই।

গুঁইসাপটি উদ্ধার করা জিহাদ বলেন, প্রাণীর প্রতি মায়ার কারনে আমরা গুইসাপটিকে মারতে না দিয়ে সেটি উদ্ধার করে বনে ছেড়ে দিয়েছি।

আমতলী উপজেলা প্রানী সম্পদ কর্মকর্তা ডা. আবু সাঈদ বলেন, গুই সাপ পরিবেশ বান্ধব ও মানুষের জন্য অনেক উপকারী একটি প্রানী। একে আমাদের বাঁচিয়ে রাখা দরকার।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।