ঢাকারবিবার, ১৪ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, বিকাল ৫:৩৫

বরগুনায় ইউপি চেয়ারম্যানকে জেলহাজতে প্রেরন

নিজস্ব প্রতিবেদক
ফেব্রুয়ারি ২, ২০২২ ১:২৮ অপরাহ্ণ
পঠিত: 44 বার
Link Copied!

বরগুনায় ইউপি নির্বাচন চলাকালীন নৌকার প্রার্থীর সমর্থকদের উপর হামলা, মোটরসাইকেল ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের অভিযোগে দায়ের করা মামলায় আয়লা-পাতাকাটা ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেনকে জেল হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে আদালত। বুধবার দুপুর ১২টার দিকে দ্রুত বিচার আদালতের বিচারক মোঃ নাহিদ হোসেন এ আদেশ দেন।

এর আগে মঙ্গলবার দুপুরে একই আদালত ওই চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারী পরওয়ানা জারি করেছিল।

মামলা সূত্রে জানা যায়, গত বছরের ১২ জুন আয়লা পাতাকাটা ইউনিয়নের পূর্ব কেওড়াবুনিয়া গ্রামে নৌকা মার্কার প্রার্থী এম মজিবুল হক কিসলুর সমর্থকদের উপর হামলা করে ১৩ টি মোটরসাইকেল ভাংচুর, একটি মোটর সাইকেলে অগ্নিসংযোগ ও মজনু নামের জনৈক কর্মীকে কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। নৌকা মার্কার প্রার্থী মজিবুল হক কিসলু বাদী হয়ে ১৩ জুন বরগুনা থানায় ১৩২ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেন। সেই মামলায় কিছু আসামী জামিনে গেলেও চেয়ারম্যান দীর্ঘদিন পলাতক ছিল।
মামলার বাদী মুজিবুল হক কিসলু বলেন, আমার নির্বাচনী গণসংযোগ চলাকালিন সময় মোশাররফ হোসেন একদল সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে আমার গণসংযোগের লোকজনের উপর হামলা করে মোটর ১৩টি মোটরসাইকেল ভাংচুর একটি মোটরসাইকেল পুড়িয়ে দেয়। আমার কর্মি মজনুকে কুপিয়ে মারাত্মক জখম করে। মামলা হবার পর চেয়ারম্যান হিসাবে শপথ গ্রহন করেন। পুলিশ তাকে গ্রেফতার করেনি। মামলার বয়স ৭মাস হলেও তিনি কোর্টে হাজির হননি।  চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অপর একটি মামলাও আছে। সেই মামলায় হাজির হলেও দ্রুত বিচার আইনে মামলায় হাজির না হয়ে পলাতক থাকেন।
বুধবার সকালে চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন আদালতে হাজির হলে তার জামিনের আবেদন না মঞ্জুর করেন আদালত।

মামলার বাদী ওই ইউনিয়ন থেকে নৌকা প্রতিক নিয়ে নির্বাচনে অংশ নিয়ে হেরে যাওয়া আইনজীবী মজিবুল হক কিসলু বলেন, আমার নির্বাচনী গণসংযোগ চলাকালিন সময় একদল সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে হামলা করে মোটর সাইকেল ভাংচুর ও আমার কর্মি মজনুকে কুপিয়ে মারাত্মক জখম করে। মামলার বয়স ৬ মাস হলে তিনি কোর্টে হাজির হয়নি। চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অপর একটি মামলা আছে। সেই মামলায় হাজির হলেও দ্রুত আইনে মামলায় হাজির না হয়ে পলাতক থাকে।

চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেনের আইনজীবী মজিবুর রহমান বলেন, এটি মিথ্যা মামলা। আমরা উচ্চ আদালতে যাব।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।