ঢাকারবিবার, ১৪ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, সন্ধ্যা ৬:৪০

প্রতারণা ও জালিয়াতির মাধ্যমে রাখাইন পরিবার উচ্ছেদের পায়তারা

জাহাঙ্গীর কবির মৃধা
মার্চ ২, ২০২২ ৩:৩৪ অপরাহ্ণ
পঠিত: 72 বার
Link Copied!

বরগুনার তালতলী উপজেলার স্থানীয় ভূমিদস্যুচক্র প্রতারণা ও জালিয়াতির মাধ্যমে ছোট ভাইজোড়া গ্রামের দীর্ঘবছর বসবাসরত বেশ কয়েকটি পরিবারকে উচ্ছেদের পায়তারা চালিয়ে আসছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

বুধবার (০২ মার্চ) সকালে বরগুনা প্রেসক্লাবে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে ভূমিদস্যুচক্রের নানাবিধ অপকর্মের খন্ডচিত্র তুলে ধরে জালিয়াতচক্রের প্রতারণা এবং জবরদখলের হাত থেকে চাষীজমি ও ভিটেবাড়ি রক্ষার দাবী করেন ভুক্তভোগীরা।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ভুক্তভোগী রাখাইন পরিবারের প্রতিনিধি মাচেজেন। তিনি জানান, তালতলীর ছোট ভাইজোড়া গ্রামের একাধিক রাখাইন ও মুসলিম পরিবারের স্বত্বদখলীয় ভূমি ও ভিটেবাড়ি থেকে স্থানীয় ভূমিদস্যুচক্রের হোতা শাহআলম, শামসুল আলম (সাম), রশিদ হাওলাদারসহ বেশকিছু প্রতারক প্রতারণা ও জালিয়াতির মাধ্যমে ৪৪নং বড়বগী মৌজার ৫৩টি দাগের ৪৭.৮৬ একর রাখাইনদের রেকর্ডিয় সম্পত্তি থেকে সাওগা মগ নামের কাল্পনিক একজন ওয়ারিশ বানিয়ে ১১টি দাগ উল্লেখ করে ২২.৬৪ এবং ২৪টি দাগের ১৯.৬০একর জমির মালিক সাজিয়ে জমির পারমিশন হাসিলে শাহআলম গং পারমিশন না পেয়ে দলীয় জালিয়াত উখেমং তালুকদার আমমোক্তার দলিল রেজিস্ট্রি করে গোপন রাখে।

উচানমং মগকে সাওগা মগ সাজানোর জালিয়াতি ধরা পরার ভয়ে ১৫.৩৩ একর জমি উচানমং মগ নিজ হাতে সাওগা মগ স্বাক্ষর ও টিপছাপ করে জালিয়াতচক্র ছাতনপাড়ার ময়ছিন তালুকদার নামে রেজিস্ট্রি করে গোপন রাখে। এই ভূমিদস্যুচক্র প্রতারণা ও জালিয়াতির মাধ্যমে জালিয়াত শাহআলম, শামসুল আলম, ইউসুফ, ছোবহান, হাসিনা, বিউটি, আজাহার, নিজাম ও রশিদের পুত্র, স্ত্রী, শ্যালক জামাল, রফিক, দুলাল, ইব্রাহিম, তারাভানু, রাজ্জাক নামে রেজিস্ট্রি করে রেখে ৪টি দলিল মূলে রুহুল আমিন গং শফিক, শহীদ, রাজ্জাক গং নিকট বিক্রয় করেও জালিয়াত চক্র থেমে থাকেনি।

ভূমিদস্যুচক্র বিভিন্নভাবে থানায় দরখাস্ত করে পক্ষপাতিত্ব শালিসগণের দ্বারা রোয়েদাদ সৃষ্টি করে ৪২.৬০ একর জমি আত্মসাৎ ও গ্রাস করার পায়তারা চালাচ্ছে। নাল জমি ক্ষমতার দাপটে একাধিক ঘর তোলার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে। জালিয়াতচক্র তাদের সৃজিত জাল দলিল ব্যবহার করে আমতলী সহকারী জজ আদালত, কবলাদার আ. আজিজ ২য় আদালতে অংজানফ্রু বন্টন মামলা করে। আদালতের কোন ডিক্রি না থাকা সত্তেও জালিয়াতচক্র শাহআলম গং প্রভাব খাটিয়ে দখলীয় জমি জবরদখল করার পায়তারা চালাচ্ছে।

সংবাদ সম্মেলনে মাচেজেন রাখাইন আরো বলেন, ভূমিদস্যুচক্রের হোতা শাহআলম ও তার সাঙ্গপাঙ্গরা জাল-জালিয়াতি, প্রতারণা, দস্যুতাই তাদের পেশা।

ইতোমধ্যেই অংজানফ্রু নামক জনৈক রাখাইন শাহআলমসহ ১৮জনের নামে জালদলিলের বিরুদ্ধে আমতলী হাকিম আদালতে মামলা দায়ের করেন।
আসামীরা হাজতবাস করলেও বর্তমানে জামিনে রয়েছে। একাধিক দলিলের নম্বরে একাধিক দলিল জালিয়াতি করে ভূমিদস্যুচক্রের হোতা শাহআলম নিজ হস্তে লিখে জাল সিল প্রয়োগ করে রাখাইনদের ভিটেবাড়ি দখল করার পায়তারা চালাচ্ছে।

জমি দখলে থাকা একাধিক রাখাইন ও একাধিক মুসলিম পরিবারকে দেশ থেকে উচ্ছেদের হুমকি দিচ্ছে এই জালিয়াতচক্র। অভিযোগের আলোকে বরগুনার সহকারী পুলিশ সুপার, তালতলী থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও সিআইডি আমতলী সাবরেজিস্ট্রি অফিস তদন্ত করলে ঘটনার সত্যতা প্রমাণীত হয়েছে। জালিয়াতচক্রের হোতা শাহআলম, শামসুল আলম (সাম), সাওগা মগ নামের ব্যক্তি উচানমং মগ গ্রেফতার হয়। হাজত খেটে জামিনে বেড়িয়ে এসে দখলীয় রাখাইন ও মুসলমানদের ভিটেবাড়ি ছাড়ার হুমকি দিচ্ছে। এদের হামলা-মামলা, উচ্ছেদের ভয়ে ভীতসন্ত্রস্ত হয়ে নির্ঘুম আতঙ্কগ্রস্ত রয়েছে রাখাইন ও মুসলিম পরিবারগুলো।

ভুক্তভোগী পরিবারের পক্ষে সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন সানলেন, উতেমং, তোতেমং , মংথিংজো, মো. হযরত আলী মল্লিক, আ. আজিজ, সোবাহান, তাসলিমা, মমতাজ, জয়নব, আবুল কালাম ও আলমগীর হোসেন।

এব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে শাহ আলম বলেন, তাদের সাথে বহুবার শালিস বৈঠকের মাধ্যমে মিমাংষা করার চেষ্টা করা হলেও তারা বসছেন না। আদালতে মামলা চলছে। সেখানে যে রায় হবে সেটাই আমরা মেনে নেব।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।