ঢাকাশনিবার, ১৩ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, রাত ১:২০

টাকার জন্য শিকলে বেঁধে কলেজ ছাত্রকে নির্যাতন

নিজস্ব প্রতিনিধি, বেতাগী
জানুয়ারি ২৯, ২০২২ ৩:৪৪ অপরাহ্ণ
পঠিত: 61 বার
Link Copied!

বরগুনার বেতাগীতে পাওনা টাকা আদায় করতে এক কলেজপড়ুয়া ছাত্রকে গাছের সাথে শিকলে বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। নির্যাতনের স্বীকার ঐ ছাত্রকে শিকলের সাথে বেঁধে রাখা একটি ছবি শুক্রবার সন্ধ্যার পর ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে।

ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার বুড়ামজুমদার ইউনিয়নে। ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীর নাম উজ্জ্বল ঢাকী। তার বাড়ি বেতাগী উপজেলার বুড়ামজুমদার ইউনিয়নের পুলেরহাট বাজার এলাকায়। সে কাউনিয়া কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র।

ভুক্তভোগীর পরিবার সূত্রে জানা যায়, সোমবার (২৪ জানুয়ারি) উজ্জল তার এক আত্মীয়কে বিকাশে ২৪ হাজার টাকা পাঠানোর জন্য পুলের হাট বাজারে বিকাশ ব্যবসায়ী আরাফাতের দোকানে যায়। উজ্জল আরাফাতের পূর্ব পরিচিত হওয়ায় সে নগদ টাকা দেয়ার আগেই দোকানদার তার আত্মীয়ের নম্বরে ২৪ হাজার টাকা পাঠিয়ে দেন। কিন্তু সে পরে টাকা পরিশোধ করতে গিয়ে দেখে দোকানদার আরাফাত ভুলে অন্য নম্বরে টাকা পাঠিয়েছেন।

দোকানদারের অসতর্কতায় টাকা ভুলে অন্য নম্বরে চলে গেলেও দোকানদার আরাফাত তার কাছে পূর্ণ টাকা দাবি করে। এ নিয়ে দুজনের মধ্যে তর্ক হয়। এসময় উজ্জল পরে টাকা পরিশোধ করবে বলায় ক্ষিপ্ত হয়ে আরাফাত ও স্থানীয় সাবেক ইউপি সদস্য রাজু মৃধা তাকে শিকল দিয়ে দোকানের সামনে গাছে বেঁধে মারধর করেন। খবর পেয়ে উজ্জলের স্বজন ও স্থানীয়রা এসে তাকে উদ্ধার করেন।

মারধরের বিচার চেয়ে ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী উজ্জল বলেন, ‘দোকানদার আরাফাত আমাকে শিকল দিয়ে বেঁধে অমানবিক নির্যাতন করেছে। তারা আমার পরিবারকেও সামাজিকভাবে হেনস্তা করল। আমি এর বিচার চাই।’

উজ্জলের বাবা পরিমল ঢাকী বলেন, ‘আমার ছেলেকে গাছের সাথে শিকল দিয়ে বেঁধে নির্যাতন করা হয়েছে। আমি মারধরের এ ঘটনায় আমি পুলিশের কাছে অভিযোগ দিয়েছি। তারাও ব্যবস্থা নিচ্ছে না। আমরা এর সুষ্ঠু বিচার চাই।’

অভিযোগের বিষয়ে ব্যবসায়ী আরাফাত হোসেন বলেন, ‘উজ্জ্বল ও তার পরিবার আমার পরিচিত। তাদের সঙ্গে এর আগেও অনেকবার টাকা লেনদেন হয়েছে। তবে এইবার টাকা ভুল নম্বরে যাওয়ায় সে দিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছিল। তাই তাকে দোকানে বসিয়ে রেখেছিলাম।’

তাকে শিকল দিয়ে বেঁধে মারধরের বিষয়টি অস্বীকার করে আরাফাত বলেন, ‘এমন কোনো ঘটনা আমার জানা নেই।’

এ বিষয়ে আরেক অভিযুক্ত সাবেক ইউপি সদস্য রাজু মৃধা বলেন, ‘বিষয়টি একটু দৃষ্টিকটু হয়েছে, তবে এ ছাড়া টাকা উঠানোর কোনো উপায় ছিল না।’

বেতাগী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আবদুস সালাম বলেন, ‘লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।