ঢাকারবিবার, ১৪ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, সন্ধ্যা ৭:৩৮

কোটি টাকার সড়ক সংস্কারে পুকুর চুরির অভিযোগ

রুদ্র রুহান
ফেব্রুয়ারি ৯, ২০২২ ৮:২৯ অপরাহ্ণ
পঠিত: 98 বার
Link Copied!

বরগুনার বেতাগীতে স্থানীয় সরকার ও প্রকৌশলী বিভাগের অধীনে দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা প্রকল্পের আওতায় সড়ক সংস্কারে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে।

স্থানীয় জনপ্রতিনিধি এবং এলাকাবাসীর অভিযোগ, সড়ক নির্মাণকাজে সঠিক মানের অভাব, ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের অনিয়ম এবং সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের যথাযথ নজরদারির অভাবে সড়কটির প্রাক্কলন অনুসারে সংস্কার হচ্ছেনা। মূল ঠিকাদার কাজ বেচে দেয়ায় চুক্তিভিত্তিক ঠিকাদার ও তদারকির দায়িত্বে থাকা প্রকৌশলীর যোগসাজশে কাজ প্রাক্কলন অনুসারে কাজ না করেই অর্থ আত্মসাতের পাঁয়তারা চলছে বলেও স্থানীয়দের অভিযোগ।

বেগাতী উপজেলা প্রকৌশলী ও উপজেলা ত্রান ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা (পিআইও) কার্যলয়ের তথ্যমতে গতবছরের জুনমাসে হোসনাবাদ ইউনিয়নের বয়াতি বাড়ি পুলঘাট থেকে বাঁধঘাট বাজার পর্যন্ত মোট ২.৬ কিলোমিটার সড়ক সংস্কারের দরপত্র আহবান করে। রাস্তার পূরাতণ সামগ্রী অভ্যন্তরীণ রেখে যার নির্মান ব্যয় ধরা হয় ৮৯ লক্ষ ৭৬ হাজার ৫১১ টাকা। আর এই রাস্তা সংস্কারে কাজ পান বরগুনার ‘সার্ক এন্টারপ্রাইজ’ নামের একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান।

তবে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের বক্তব্য তারা কাজটি বেতাগী উপজেলা যুবলীগের অর্থবিষয়ক সম্পাদক মো. শাহআলম রুবেল নামের এক ঠিকাদারের কাছে চুক্তিভিত্তিক বিক্রি করে দেন। প্রাক্কলনের রাস্তার দুইপাশের সাপোর্ট হিসেবে মাটির কাজ বাবদ মোট বরাদ্দকৃত অর্থের মধ্যে ৫ লাখ ১৮ হাজার ১৫৬ টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

কিন্ত সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, রাস্তায় উভয় পাশে মাটির তেমন কাজ হয়নি। এছাড়া প্রাক্কললনে রাস্তার দুইপাশের এজিনের  ইট ৫ ইঞ্চি প্রস্থে বসানোর কথা থাকলেও, বাস্তবে পুরো রাস্তার এজিনের প্রস্থ ৩ ইঞ্চি। ২হাজার ৬০০ ফুট রাস্তার মধ্যে ১১টি স্থানে (রোড সেইফটি ওয়ার্ক) নরম স্থানের মাটিতে ঢালাইয়ের বাবদ ১ লাখ ৮৮ হাজার টাকা উল্লেখ থাকলেও লোকাল বালি দিয়েই তা পরিপূর্ণ করেছেন ঠিকাদার। কাজের প্রাক্কলন অনুযায়ী রাস্তার পূরাতন সামগ্রী (খোয়া, ইট, বিটোমিন মাখা পাথর ও ইট) পুরো রাস্তা চষে রোলার দিয়ে সমানভাবে মিশিয়ে দেয়ার কথা উল্লেখ রয়েছে। এর ওপর কমপক্ষে ৬ ইঞ্চি বালুর আস্তরন এবং সর্বশেষ তার ওপর ৪ ইঞ্চি মানসম্মত ইটের ‘মেকাডাম’ (ইটের বড় খোয়ার সাথে পানি মিশ্রন) ফেলে রোলার করতে হবে। কিন্তু ঠিকাদার রাস্তার সকল পুরণো ইট দিয়ে দুপাশে ‘এজিন’ বসিয়েছেন।

ওই এলাকার বাসিন্দা মো.লিটন সিকদার বলেন, সড়কে উপরিভাগে নতুন ও মানসম্মত ইটের বড় খোয়া ফেলে রোলার দেয়ার কথা থাকলেও আগের রাস্তার পুরনো ইট ও ভেঙে মেগাড্যাম (ইটের বড় খোয়ার সাথে পানি মিশ্রন) (ইটের বড় সাইজের খোয়া) দেয়া হয়েছে। এছাড়াও ওই সড়কের পুরনো ইট ওই ঠিকাদারের অন্য দুইটি কাজের সাইটে পাঠিয়েছেন। লিটন বলেন, আমরা এলাকাবাসী নির্মানকাজে বাঁধা দিলে বিষয়টি সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নজরে আসেন এবং একাধিকবার পরিদর্শনে আসেন, কিন্তু রাস্তার কাজে কোন পরিবর্তন আসছে না। আমাদের এলাকাবাসীর দাবি রাস্তার পূরাতণ মালামাল যথাস্থানে ফেরৎ এনে পূণরায় প্রাক্কলন অনুযায়ী সঠিকভাবে কাজ করা হোক।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে এলাকার একজন জনপ্রতিনিধি বলেন, প্রকৌশলী ইব্রাহীম মাঝে মাঝে রাস্তার কাজ পরিদর্শনে আসেন সত্য! তবে সেটি রাস্তা দেখতে না ঠিকাদারের প্রতিনিধির সাথে আলাদা করে আলাপ করতে, কারন ঠিকাদারের সাথে প্রকৌশলী ইব্রাহিমের বেশ সখ্যতা রয়েছে। এলজিইডির এই দায়িত্বহীনতার কারনেই রাস্তার কাজের মান বড্ড খারাপ হচ্ছে।

এ বিষয়ে বরগুনার ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ‘সার্ক এন্টারাইজের সাথে স্বত্বাধিকারী খলিলুরর রহমানের সাথে যোগাযোগ করা হলে বলেন, আমি কাজটি বেতাগী উপজেলা যুবলীগের অর্থবিষয়ক সম্পাদক মো.শাহআলম  রুবেলের কাছে বিক্রি করে দিয়েছি। বিষয়টি এলজিইডির কর্মকর্তারা জানেন। এলজিইডি ওই ঠিকাদারকে দিয়ে প্রাক্কলন অনুসারে কাজ উঠিয়ে নেবে। এখানে আমার কোনো দায় নেই।

চুক্তিভিত্তিক ঠিকাদার শাহ আলম রুবেল বলেন,আমার কাজ শতভাব সঠিকভাবে হচ্ছে। আমি কোন অনিয়ম করিনি।আমার এলাকার কিছু স্থানীয় ঠিকাদার ভুল তথ্য দিয়ে আমাকে সামাজিকভাবে হেয় করছেন।তাছাড়া ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা আছেন তারা পরিদর্শন করে সুপারিশ না করলে তো বিল পাবো না।

এ ব্যাপারে বেতাগী স্থানীয় সরকার ও প্রকৌশলী বিভাগের উপ-সহকারি প্রকৌশলী মো. ইব্রাহীম বলেন, কাজে আমাদের তদরকি ছিলো, ঠিকাদার আমাদের অজান্তে কিছু অনিয়ম করেছে। তবে বুধবার আমরা পরিদর্শন করে সেগুলো ঠিক করার জন্য নির্দেশ দিয়েছি। সঠিকভাবে কাজ না করলে বিল দেয়া হবেনা এটা ঠিকাদার জানেন। আমরা শতভাগ সঠিক কাজ আদায় করতে চেষ্টা করছি

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।