ঢাকাবৃহস্পতিবার, ১১ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, সকাল ৮:২০

উন্নত বাংলাদেশ বিনির্মাণে উৎপাদনশীলতার গুরুত্ব বিষয়ক সেমিনার

নিজস্ব প্রতিবেদক
ফেব্রুয়ারি ৯, ২০২২ ৮:০৩ অপরাহ্ণ
পঠিত: 126 বার
Link Copied!

উন্নত বাংলাদেশ বিনির্মাণে উৎপাদনশীলতার গুরুত্ব বিষয়ক সেমিনার বরগুনা পৌরসভার সম্মেলনকক্ষে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার (০৯ ফেব্রুয়ারী) সকাল এগারোটায় ন্যাশনাল প্রোডাকটিভিটি অর্গানাইজেশন (এনপিও) এর জনবলের সক্ষমতা বৃদ্ধি এবং দেশব্যাপী উৎপাদনশীলতা বিষয়ক অবহিতকরণ শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় আয়োজিত এ সেমিনারে (ভার্চুয়ালের মাধ্যমে) প্রধান অতিথি ছিলেন শিল্প মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) মুহাম্মদ মেসবাহুল আলম।

সেমিনারে প্রধান অতিথি বলেন, উন্নত দেশে পরিণত হতে উৎপাদনশীলতা ও দক্ষতা বৃদ্ধির কোনো বিকল্প নেই। জনশক্তিকে দক্ষ করে তুলতে সরকার বিভিন্ন সংস্থার মাধ্যমে প্রশিক্ষণ প্রদান করে। শিল্পখাতের জন্য প্রশিক্ষিত জনগোষ্ঠী তৈরির কার্যক্রম অব্যাহত আছে। প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠানে প্রশিক্ষণার্থী ও প্রশিক্ষণ প্রদানকারী উভয়কে আন্তরিক হওয়া প্রয়োজন। প্রশিক্ষণ শেষে দায়িত্বশীলতার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট কাজে নিযুক্ত হতে হবে। দেশে দক্ষ জনগোষ্ঠীর অভাব থাকায় বিদেশিরা বিভিন্ন সেক্টরে কাজ করছে। বাংলাদেশের বৃহৎ তরুণ জনগোষ্ঠী কারিগরি জ্ঞানে দক্ষ হলে দেশের সামগ্রিক উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধি পাওয়া সুনিশ্চিত। চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের এ যুগে যোগ্যতার মাধ্যমে নিজের অবস্থান তৈরি করতে হবে।

সেমিনারে মূল প্রবন্ধে জানানো হয়- দক্ষ জনশক্তির অভাব, মেধা পাচার, মানসম্মত কাঁচামালের অভাব, উৎপাদন পদ্ধতি আধুনিক না হওয়া এবং সঠিক ব্যবস্থাপনার অভাবে বাংলাদেশ মানসম্মত উৎপাদনশীলতা অর্জনে পিছিয়ে পড়ছে। উৎপাদনে সঠিক প্রযুুক্তি ও মানসম্পন্ন পরিচালন ব্যবস্থা নিশ্চিত করা দরকার। চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের ফলে উৎপাদনের ক্ষেত্রে পরিবেশ বান্ধব ও সাশ্রয়ী প্রযুক্তির ব্যবহার, রোবটিক- ন্যানোটেকনোলোজি ও আর্টিফিশিয়াল ইনটেলিজেনস ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, আন্তর্জাতিক সংস্থা প্রাইস ওয়াটার হাউস কুপারের মতে ২০৫০ সালে বাংলাদেশ বিশ্বের ২৩তম বৃহৎ অর্থনীতির দেশে পরিণত হবে। দেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির হার এক দশক ধরে ছয় শতাংশের ওপরে আছে। দেশে বৈদেশিক মুদ্রার মুজদ এখন ৩৯ দশমিক ২৮ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।

বরগুনা জেলা প্রশাসনের সার্বিক সহযোগিতায় শিল্প মন্ত্রণালয়ের ন্যাশনাল প্রোডাকটিভিটি অর্গানাইজেশন (এসপিও) এবং জাতীয় ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প সমিতি (নাসিব) যৌথভাবে এ সেমিনারের আয়োজন করে।

সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন উর্ধতন গবেষণা কর্মকর্তা মোঃ আরিফুজ্জামান।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তানভীর আহমেদ খান এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সঞ্চালনা করেন দীপাঞ্চল পত্রিকার সম্পাদক মোশাররফ হোসেন।

বিশেষ অতিথি ছিলেন, প্রেসক্লাবের সিঃ সহসভাপতি জাফর হাওলাদার, টেলিভিশন সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি সালেহ্ জাফর, সহকারী কমিশনার আরিফুর রহমান, বরগুনা পৌর মেয়র অ্যাড. কামরুল আহসান মহারাজ, দীপ্ত টিভির বরগুনা প্রতিনিধি শাহ্ আলী, এসএ টেলিভিশন এর জেলা প্রতিনিধি তালুকদার মোঃ মাসউদ সহ প্রমুখ।

এসময় উপ-ব্যাবস্থাপক বিসিক বরগুনা এর কাজী তোফাজ্জেল হক, জাতীয় ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প সমিতি (নাসীব) এর সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব আঃ রশিদ খানসহ জনপ্রতিনিধি, সরকারি কর্মকর্তা, ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্পের উদ্যোক্তা ও গণমাধ্যমকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

সেমিনারে অংশগ্রহণকারীরা উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধিতে বরগুনা অঞ্চলের চ্যালেঞ্জ, উদ্যোক্তাদের প্রশিক্ষণের স্বল্পতা, বাজারজাতকরণ ব্যবস্থাপনার ঘাটতি ও কাঁচামালের পর্যাপ্ত সরবরাহ নিশ্চিত করাসহ বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরেন।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।